মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

ভিশন ও মিশন

ভিশন মিশন

 

  1. স্থানীয় জাতের ধান (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) উফশী জাত দ্বারা প্রতিস্থাপন।
  2. ধানের সাথে মাছ (তেলাপিয়া,সিলভার/মিরর কার্প,সরপুটি,কার্প) চাষের প্রযুক্তির সম্প্রসারণ।
  3. সর্জান পদ্ধতির আধুনিকায়ন ও সম্প্রসারণ করে সবজি ও মাছ উৎপাদন বৃদ্ধি।
  4. আউশ ও আমন ধানে USG/NPK-গুটি মাটির গভীরে স্থাপন প্রযুক্তি সম্প্রসারণের মাধ্যমে উৎপাদন বৃদ্ধি।
  5. শস্য বহুমুখীকরনের মাধ্যমে সম্ভাবনাময়ী নতুন ফসলের (বিশেষ করে সূর্যমুখী, মুগ, ভূট্টা, গম ইত্যাদি) আবাদ বৃদ্ধি।
  6. কৃষক ও মাঠ পর্যায়ের কর্মীদের লাগসই কৃষি প্রযুক্তি বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান।
  7. পোল্ডার সংস্কার, স্থানীয় উপকারভোগীদের প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে অবকাঠামো পরিচালনায় দক্ষ করে গড়ে তোলা, বাঁধ মেরামত ইত্যাদি কার্যক্রম জোরদারকরণ ও বাসত্মবায়ন করা।
  8. পোল্ডারের অভ্যন্তরে পানি নিষ্কাশন, খালসমুহ পূন:খনন ও সংষ্কার করে পানির সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিত করে ধান ফসলের আবাদ বৃদ্ধি করা।
  9. স্লুইস গেট পরিচালনা কমিটি গঠন/পূন:গঠন এবং স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানকে (এলজিইডি) পোল্ডার ব্যবস্থাপনায় সম্পৃক্ত করে জলাবদ্ধতাসহ অন্যান্য সমস্যা দূরীকরণের মাধ্যমে কৃষি উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধি করা।
  10. স্থানীয় জাতের ধান উফশী জাত দ্বারা প্রতিস্থাপন এবং প্রচলিত ফসলধারায় এক বা একাধিক ফসল অমর্ত্মভূক্ত ইত্যাদি কার্যক্রম জোরদারকরণের লক্ষ্যে কৃষি সম্প্রসারণ কার্যক্রম শক্তিশালীকরণ ও মাঠ পর্যায়ে জনবল বৃদ্ধি করা।
  11. সমন্বিত কৃষি উন্নয়নের জন্য গবেষণা ও সম্প্রসারণ প্রতিষ্ঠানগুলির সমন্বয়ে লাগসই প্রযুক্তিসমূহ দ্রম্নত সম্প্রসারণের লক্ষ্যে কার্যক্রম জোরদার করা।
  12. সর্জান পদ্ধতির আধুনিকায়ন ও সম্প্রসারণ করে সবজি ও মাছ উৎপাদন বৃদ্ধি।
  13. পতিত জমি চাষের আওতায় আনার লক্ষ্যে ফসল উৎপাদনের আধুনিক কলাকৌশলের ওপর প্রদর্শনী স্থাপন ও প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে কৃষকগণকে উদ্ধুদ্ধ করা।
  14. খাল খনন ও পুন:খনন করে সেচ ব্যবস্থার সম্প্রসারণ ও সহজলভ্য করে বোরো ধান আবাদ বৃদ্ধির সাথে সাথে রবি শস্য, শাক-সবজি ও আউশ ধানের আবাদ বৃদ্ধি করা।
  15. বসতবাড়ি-তে সবজি ও ফল চাষের সম্ভাব্য সকল স্থান চিহ্নিত করে সম্পদের সুষ্ঠু ব্যবহারের উপর প্রশিক্ষণ ও উদ্বুদ্ধকরণের মাধ্যমে আবাদ বৃদ্ধি করা।
  16. নিয়মিত লবণাক্ততা পরিবীক্ষণ ও কৃষকদের অবহিতকরণের কার্যক্রম গ্রহন করা।
  17. এলাকা ভিত্তিক গবেষণা কার্যক্রম জোরদারকরণ এবং প্রয়োজনে গবেষণা কেন্দ্র/উপ-কেন্দ্র স্থাপন করা।
  18. বিভিন্ন ফসলের উন্নত জাতসমূহের বীজ সরবরাহ/বিপণন ব্যবস্থা জোরদার করতে হবে। পাশাপাশি যে সকল স্থানীয় ফসলের জাত লবণাক্ততায় ভাল ফলন দেয় সে সমসত্ম ফসলের গুণগত/মানসম্পন্ন বীজ সরবরাহ নিশ্চিত করা।

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter